সময়ের অপচয় কিভাবে রোধ করবেন। সময়ের কিভাবে সঠিক ব্যবহার করবেন জেনে নিন। Solve Hobe

0
355

আপনি হয়তো বা শুনলে অবাক হবেন যে আমাদের মধ্যে প্রায় seventy nine পার্সেন্ট smartphone user সকালে ঘুম থেকে উঠেই সবার প্রথমে মাত্র দশ থেকে পনেরো মিনিটের মধ্যেই নিজের মোবাইল ফোনের notification check করে এরপর সারাদিনে আমরা প্রায় একশো পঞ্চাশ বার আমাদের মোবাইল ফোন টিকে use করার জন্য হাতে নেই।

আর এইভাবে দিনে মোট চব্বিশ ঘন্টার মধ্যে আমরা প্রায় নয় ঘন্টাই আমাদের মোবাইল ফোন টিকে use করে. আসলে সময় আমাদের লাইফ এর সবচাইতে বেশি টাইম western হল এই মোবাইলফোন।

Just একটু ভেবে দেখুন আমরা যদি প্রতিদিন এই নয় ঘন্টা সময় মোবাইলের পেছনে অযথা waste না করে যদি নিজেদের কোন কে improve করার জন্য ব্যবহার করি তবে আমরা মাত্র চার থেকে পাঁচ বছরের মধ্যেই যেকোনো ফিল্ডের টপ পজিশনে পৌঁছাতে পারবো।

আর তাই যে কোন ফিল্ডে successful হবার জন্য সবার প্রথমে আমাদেরকে time করা বন্ধ করতে হবে।

তো সেজন্য আজ এই ভিডিও টিতে আমি আপনাদের সাথে এমন কিছু effective শেয়ার করবো যেগুলো আপনাকে টাইম waste করার হাত থেকে রক্ষা পেতে অনেকটাই হেল্প করবে. তো চলুন শুরু করা যাক।

Number one must upilize every single second wisely মনে করুন জন্মগ্রহণ করার পর পরই যদি আপনাকে মোট চব্বিশ হাজার নয়শো পঁচাশি টাকা দেওয়া হয় এবং বলা হয় যে সারাজীবন আপনাকে শুধুমাত্র এই টাকা দিয়েই চলতে হবে, এছাড়া কোন বাড়তি টাকা আপনাকে দেওয়া হবে না।

অর্থাৎ এই চব্বিশ হাজার নয়শো পঁচাশি টাকা দিয়েই আপনাকে আপনার জন্ম থেকে শুরু করে মৃত্যু পর্যন্ত সকল খরচ বহন করুন হবে তবে আপনি এই টাকাগুলোকে কিভাবে খরচ করবেন?

যদি সত্যিই এমনটা হয় তবে আপনি নিশ্চয়ই এখান থেকে এক একটি টাকাও অনেক হিসাব করে খরচ করবেন. কারণ স্বাভাবিকভাবেই তখন সেই এক একটি য়গাও আপনার কাছে অনেক বেশি মূল্যবান হয়ে দাঁড়াবে।

তবে বাস্তবে টাকা না হলেও এর চাইতে বহুগুন মূল্যবান একটা জিনিস আমাদের মধ্যে maximum মানুষ life এ টোটাল প্রায় এত টুকুই পেয়ে থাকে. কটা সার্ভে থেকে জানা গেছে বর্তমানে আমাদের গড়আয়ু প্রায় আটষট্টি দশমিক পঁয়তাল্লিশ বছর।

যেটাকে দিনে কনভার্ট করলে হয় চব্বিশ হাজার নয়শো পঁচাশি দিন. অর্থাৎ study করা ইনকাম করা ফ্যামিলি me করা এবং নিজের dream কে পূরণ করা এই সকল কাজের জন্য আমাদের হাতে শুধু মাত্র এই চব্বিশ হাজার নয়শো পঁচাশিটি দিনই থাকে।

সত্যি বলতে যেটি নিতান্তই খুবই অল্প সময়. তবে এর চাইতেও বেশি ভয়াবহ বিষয় হল এত কম সময়ের মধ্যেও আমরা প্রায় নয় হাজার দিন অপ্রয়োজনীয় কাজকর্ম করে কাটিয়ে দেই।

যেটি আমাদের হাতে থাকার টোটাল দিনগুলোর মধ্যে প্রায় thirty five পার্সেন্ট দিনেরও বেশি সময়. তাই আমাদের উচিত আমাদের জীবনের এই অল্প মহামূল্যবান সময় গুলোকে একটু অপচয় না করে তা পুরোপুরি সঠিক ভাবে এবং সঠিক কাজে ব্যবহার করা।

Number two reduce wasting diamond sm পার্টফর্ম যদি আপনাকে প্রশ্ন করা হয় যে আপনি স্মার্ট ফোন কেন ইউজ করেন? তবে বেশিরভাগই উত্তর দিবেন সকল ফ্রেন্ডস এবং রিলেটিভদের সাথে connected থাকার জন্য।

কিন্তু বাস্তবতা হলো আমরা সোশ্যাল মিডিয়া তে maximum টাইম এমন সব মানুষদের পিছনে টাইম waste করি যাদেরকে সরাসরি চিনি না এবং জীবনে কোনদিনই দেখিইনি।

যদি সত্যি আপনি আপনার friends এবং relatives দের care করে থাকেন, তবে সোশ্যাল মিডিয়া তে তাদের পোস্টে অযথা লাইক, কমেন্ট না করে সরাসরি ড়ি ফোন কল দিয়ে তাদের সাথে কথা বলুন।

এতে করে আপনার এবং তাদের উভয়েরই অনেক মূল্যবান সময় বেঁচে যাবে. তাছাড়া সম্ভব হলে মাঝেমধ্যে তাদের সাথে সরাসরি দেখা করে lunch অথবা dinner করুন।

প্রত্যেক পক্ষে এটাই real care, সোশ্যাল মিডিয়া তে like, কমেন্ট, অথবা emoji send করা নয়. তাছাড়া আপনার উচিত নিজেকে প্রশ্ন করা যে আপনার ফোনে মোট যতগুলো apps ইনস্টল করা আছে তার মধ্যে ঠিক কতগুলো apps আপনার লাইফ কে improve করতে সত্যিই হেল্প করছে, যেগুলো আপনার লাইফ কে কোন ভাবেই improve করছে না বরং আপনার মূল্যবান টাইম waste করছে সেগুলোকে আজই uninstall করুন।

তাছাড়া যেকোনো skill কে improve করার জন্য মোবাইলে শুধুমাত্র একটাই অ্যাপ রাখুন. তবেই সেই skill টাকে improve করতে পারবেন।

নতুবা সারাক্ষণ সেই useless অ্যাপ গুলোর পেছনে শুধু শুধু টাইম waste হবে. তাছাড়া অযথা কারোর সাথে ঘন্টার পর ঘন্টা chat না করে সরাসরি ফোন কল এ কথা বলুন, দেখবেন অনেকটাই সময় waste hover এর হাত থেকে বেঁচে যাবে।

কারণ পাঁচ মিনিট ফোন কল এ কথা বললে আপনি যে বলতে পারবেন তা হয়তো চ্যাটে আপনি তিরিশ মিনিটেও বলতে পারবেন না. Number three must focus on your white important কল আসলে আমাদের জীবনে যখন কোনো নির্দিষ্ট লক্ষ্য থাকে না ঠিক তখনই আমরা না চাইলেও সব বেশি টাইম ওয়েস্ট করে।

আর এটা ন্যাচারাল. আসলে জীবনের যেকোনো ফিল্ডে successful হবার জন্য একটা সঠিক লক্ষ্য থাকা অত্যন্ত জরুরি. আর এজন্য আমাদের উচিত প্রত্যেকেরই নিজের লাইফে একটা সুনির্দি table set করে সেই অনুযায়ী প্রতিনিয়ত কাজ করা যেমন আপনি যদি একজন স্টুডেন্ট হয়ে থাকেন তবে আপনি পড়াশোনার পাশাপাশি যত কিছুই করেন না কেন সেই মুহূর্তে আপনার লাইফ এ সবচাইতে wide important হওয়া উচিত exam এ একটা ভালো mask assive করা, আর সেজন্য আপনাকে অবশ্যই একটা নির্দিষ্ট time slot fix করে regular dep study করতে হবে।

Stip jobs একবার কিছু students দের সাথে তার personal experience শেয়ার করছিলেন. কথার এক পর্যায়ে তিনি বলেছিলেন আজ Apple billion dollar এর কোম্পানি তে পরিণত হয়েছে।

কিন্তু তারপরও আপনি যদি আমাদের সবগুলো product কে একটি tab রাখেন তবুও সে টেবিলটির কিছুটা জায়গা খালি থাকবে. এর অর্থ হলো উনি চাইলে apple কোম্পানি তে অনেক কিছু করতে পারতেন।

আর সেটা করার জন্য ওনাদের কাছে যথেষ্ট অর্থ এবং resource দুটোই ছিল কিন্তু তবুও তারা শুধুমাত্র অল্প কিছু প্রোডাক্ট এর উপর focus করেছিলেন. এবং তাদের সম্পূর্ণ এনার্জি সেগুলোকে মার্কেটের বেস্ট প্রোডাক্টে পরিণত করার কাজে ইউজ করেছিলেন।

আর এজন্যই আজ apple comp এত বেশি সফল তাই আমাদেরও উচিত অনেকগুলো লক্ষ্যের পেছনে অযথা সময় নষ্ট না করে একটা fixed target create করে সেই অনুযায়ী কাজ করা।

যদি এই পোস্টটি আপনার useful মনে হয় তবে অবশ্যই পোস্টটিকে লাইক করুন এবং শেয়ার করুন।

ধন্যবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here